শীতকাল ভালো কাটানোর কিছু সহজ উপায়

0
17

winter

শীতকাল অনেকের কাছেই খুব প্রিয়, আবার অনেকের কাছে খুবই কষ্টের। শীতকাল মানেই প্রথমে যে ভয়টা মাথায় আসে তা হলো গোসল করা।

ওহ! কম্বলের তলা থেকে যে বাহির হতেই ইচ্ছে করে না। আবার ঘুম থেকেও উঠলাম আর স্নানও করলাম, কিন্তু গায়ে খালি খড়ি ফোটে যে। তাও আবার ম্যানেজ করতে হবে। কিন্তু খারাপের সঙ্গে সঙ্গে ভালোগুলোও যে আছে। শীতকাল মানেই যা খুশি তাই খাও পেট খারাপ হওয়ার কোন চান্স নেই। আর কনকনে ঠাণ্ডোয় আইসক্রিম খাওয়ার মজাটাও একেবারেই আলাদা। তবে ভালো খারাপের মধ্যে এমন কিছু জিনিষ আছে যা করলে এই মৌসুমটাকে উপভোগ করা যাবে একেবারে মনের মত করে। কী ভাবে? তবে এবার দেখে নেওয়া যাক…

১. আমাদের শরীরের সমস্ত তাপমাত্রা কিন্তু মাথা দিয়ে বের হয় না। কিছু তাপমাত্রা হাতের মাধ্যমেও বাইরে যায়।
তাই শরীর ভালো রাখতে অবশ্যই হাতে গ্লাভস পড়ে বাসা থেকে বাহির হওয়া উচিত।

২. যারা খুব রোগা কিছুতেই মোটা হচ্ছেন না, তারা বেশী করে খাবেন। কারণ শীতকালে ওজন বৃদ্ধি করা খুবই সহজ। তবে সর্তক থাকবেন মোটা আকৃতির আছেন যারা।

৩. শীতকাল মানেই যেন ভাববেন না সূর্য নেই। এই কালে সূর্য পৃথিবীর অনেকটা কাছে চলে আসে। তাই সব সময় সান’স ক্রিম মেখে তবেই বাইরে বাহির হবেন। কেননা এই শীতে ৮০ শতাংশ ক্ষতিকারক রঞ্জনরশ্মি আমাদের স্কিনের ক্ষতি করতে সক্ষম হয়।

৪. ছোট থেকেই আমরা শুনে আসি ঠাণ্ডাতে বাহির হলে শরীর খারাপ হয়ে যাবে। কিন্তু এই কথা সম্পূর্ণ ভুল। কারণ ঠাণ্ডাতে আমাদের শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা অনেক বেড়ে যায়। যাতে শরীর খারাপ হওয়ার চান্স অনেক কম থাকে।

৬. ‘শীতকালে মদ্য পান করলে শরীর গরম থাকে’-এই কথা আমরা অনেকেই জানি। কিন্তু শরীর গরম হয় কারণ মদ আমাদের শরীরের মধ্যে গিয়ে তা শুধুমাত্র ত্বকে গরম করে। কিন্তু আমাদের শরীরের ভিতরের তাপমাত্রা আস্তে আস্তে কমতে শুরু করে। তাই মদ খাওয়া খুব একটা ভালো নয়।

এই কথাগুলো মাথায় রেখে একেবারে জমিয়ে কাটান শীতকাল। কারণ প্রায় দরজা ধাক্কাতে শুরু করেই দিয়েছে শীতকাল!

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here