রোহিঙ্গা বিদ্রোহীদের এক মাসের অস্ত্রবিরতি ঘোষণা

0
4

মিয়ানমারের রোহিঙ্গা মুসলমান বিদ্রোহীরা (আরসা) একতরফা ভাবেই এক মাসের জন্য অস্ত্রবিরতির ঘোষণা দিয়েছে। আজ রবিবার থেকে এই অস্ত্রবিরতি কার্যকর হবে।

রোহিঙ্গা বিদ্রোহীদের এক মাসের অস্ত্রবিরতি ঘোষণা

গতকাল শনিবার দেওয়া এক বিবৃতিতে আরসা বা আরাকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মি বলেছে, তারা রাখাইনে মানবিক সংকট বিবেচনায় এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে এবং তারা আশা করছে মিয়ানমারের সেনাবাহিনীও সেখানে অস্ত্রবিরতি করবে।

এদিকে এ নিয়ে এখন পর্যন্ত মিয়ানমার কর্তৃপক্ষের কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি। যদিও রাখাইনের সহিংসতা প্রসঙ্গে মিয়ানমারের সরকারের বক্তব্য, রোহিঙ্গা জঙ্গি এবং মুসলমান গ্রামবাসীরা নিজেরাই নিজেদের ঘরবাড়ি পুড়িয়ে দিচ্ছে এবং অমুসলিমদের ওপর হামলা চালাচ্ছে। এদের অনেকেই সহিংসতা থেকে বাঁচতে পালিয়ে যাচ্ছে।

এর আগে মিয়ানমারের একজন মন্ত্রীও বলেছিলেন, রাখাইনে সহিংসতার কারণে যেসব রোহিঙ্গা মুসলমান মিয়ানমার ছেড়ে পালিয়ে গেছে, তাদের সবাইকে দেশে ফিরতে দেওয়া হবে না।

প্রসঙ্গত, গত ২৫ আগস্ট পুলিশের ওপর এই আরসার চালানো হামলার প্রতিক্রিয়াতেই রাখাইন রাজ্যে শুরু হয় সেনা অভিযান।  যার কারণে প্রায় তিন লাখ রোহিঙ্গা মুসলমান প্রতিবেশী বাংলাদেশে পালিয়ে আসতে বাধ্য হয়। এ রকম পরিস্থিতিতেই আরসা’র তরফ থেকে এলো একতরফা অস্ত্রবিরতির ঘোষণা। একইসঙ্গে তারা সাহায্যকারী সংস্থাগুলোতে রাখাইন এলাকায় তাদের কর্মকাণ্ড শুরু করারও আহ্বান জানিয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here