রোহিঙ্গাদের ৭১ হাজার একর জমির ধান কেটে নিচ্ছে মিয়ানমার সরকার

0
43

Rohingyas paddy

আরাকানে নিজ জমিতে ধান চাষ করেছিল রোহিঙ্গারা। কিন্তু সেই ধান ঘরে তোলার অাগেই ঘর ছাড়তে হয়েছে তাদের।
মিয়ানমার সেনাবাহিনীর নির্যাতন ও নৃশংসতার শিকার হয়ে প্রাণ পালিয়েছে রোহিঙ্গারা। আর তাদের চাষ করা ধান কাটার সময় হয়েছে এখন। কিন্তু সেই ফেলে আসা ধানের ফসল তুলছে মিয়ানমার সরকার। শনিবার জমিতে ধান কাটা শুরু করেছে সরকারের লোকজন।

মিয়ানমারের রাষ্ট্রীয় ও স্থানীয় গণমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, শনিবার মংডুতে ৭১ হাজার একর জমির ধান কাটা শুরু করেছে দেশটির সরকার।

স্থানীয় কৃষিবিভাগের প্রধান থেইন ওয়েই বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেন, শনিবার থেকে আমরা মংডুর মেই থু গেই গ্রামের কৃষি ভূমিতে ফসল তোলা শুরু করেছি। বাংলাদেশে পালিয়ে যাওয়া রোহিঙ্গাদের ফেলে যাওয়া ধানক্ষেত থেকে আমরা ফসল তুলতে যাচ্ছি।

অন্যদিকে দেশটির রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম গ্লোবাল নিউ লাইট জানিয়েছে, ওই জমির ফসল তুলতে সহায়তা করতে মিয়ানমারের অন্যান্য অংশ থেকেও শ্রমিকদের জড়ো করা হয়েছে।

আর এ ফসল কাটাকে রাখাইন থেকে রোহিঙ্গাদের স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করার পরিকল্পিত চেষ্টার অংশ হিসেবে আখ্যা দিয়ে মানবাধিকার সংস্থাগুলো নিন্দা জানিয়েছে।
ফলে পালিয়ে আসা ছয় লাখেরও বেশি রোহিঙ্গাদের নিজ নিজ বাসস্থানে ফিরে যাওয়া নিয়ে বাড়ছে উদ্বেগ।

হিউম্যান রাইটস ওয়াচের ফিল রবার্টসন বলেন, সরকারি কর্মকর্তাদের নেতৃত্বে রোহিঙ্গাদের চাষ করা ফসল তুলে নেয়া আগের যে কোনো সময়ের চেয়ে বেশি উদ্বেগের।

মানবাধিকার সংস্থা ফোর্টিফাই রাইটস জানিয়েছে, কর্তৃপক্ষের এই ফসল তোলার ঘটনা চরম উদ্বেগজনক উদ্যোগ। এর আগেও তাদের ভূমি দখলের দীর্ঘ ইতিহাস আছে, বিশেষভাবে নৃ-তাত্ত্বিক সংখ্যালঘু প্রান্তিক মানুষদের।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here