রোহিঙ্গাদের জন্য ত্রাণ নিতে বিএনপিকে বাধা

0
6

রোহিঙ্গাদের জন্য ত্রাণ সামগ্রী নিয়ে কক্সবাজারের উখিয়ায় যাওয়ার পথে বিএনপির কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দলকে আটকে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ এসেছে।

ছবিটি কক্সবাজার বিএনপির ফেইসবুক পাতা থেকে নেওয়া

রাঙামাটিমুখী ফখরুলদের গাড়িবহরে রাঙ্গুনিয়ায় হামলা
বুধবার বেলা সাড়ে ৩টায় ঢাকার রমনার ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউশন মিলনায়তনে এক আলোচনা সভার মধ্যে এই খবর পেয়ে তা উপস্থিত সবাইকে জানান বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি বলেন, “এই মাত্র আমাদের কাছে খবর এসেছে কক্সবাজারে আমাদের যে কেন্দ্রীয় রিলিফ টিম ২০টি ট্রাক নিয়ে গিয়েছিল জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসের নেতৃত্বে। তাদেরকে উখিয়াতে প্রশাসন যেতে দিচ্ছে না, পুলিশ ট্রাক আটকে দিয়েছে।”

সহিংসতার মুখে মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা লাখ লাখ রোহিঙ্গাদের মধ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ত্রাণ বিতরণের একদিন বাদেই বিএনপির প্রতিনিধি দল যাত্রা করে উখিয়ায়।

ফখরুল বলেন, “শুধু তাই নয়, কক্সবাজারে আমাদের বিএনপি অফিস পুলিশ ঘিরে রেখেছে। আমাদের শীর্ষস্থানীয় নেতারা অফিস ঘরে আটকা পড়ে আছেন।”

ফখরুল এই ঘটনার নিন্দা জানিয়ে বিএনপির প্রতিনিধি দলকে রোহিঙ্গাদের ত্রাণ দিতে প্রশাসনের প্রতি আহ্বান জানান।

বিএনপির অভিযোগের বিষয়ে কক্সবাজারের স্থানীয় প্রশাসনের কোনো বক্তব্য তাৎক্ষণিকভাবে পাওয়া যায়নি।

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের নেতারা রোহিঙ্গাদের নিয়ে ‘রাজনীতি’ না করতে বিএনপির প্রতি আহ্বান জানিয়ে আসছিলেন।

কয়েক মাস আগে পাহাড় ধসে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য ত্রাণ নিতে যাওয়ার সময় বাধা পেয়েছিল মির্জা ফখরুল নেতৃত্বাধীন বিএনপি প্রতিনিধি দল।

এবার বাধার অভিযোগ তুলে ফখরুল বলেন, “এই ঘটনার মধ্য দিয়ে এই সরকারের মুখোশ উন্মোচিত হয়েছে। তারা যে বলছেন তারা এই রোহিঙ্গাদের পাশে দাঁড়িয়েছেন, এটা শুধু আইওয়াশ বলে প্রমাণিত হচ্ছে।

“যদি দাঁড়াতেন তাহলে তারা আজকে বিএনপির রিলিফ টিমকে উখিয়ায় অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়াতে বাধা দিতেন না।”

মঙ্গলবার সকালে ঢাকা থেকে বিমানে কক্সবাজার রওনা হয় বিএনপির প্রতিনিধি দল। মির্জা আব্বাসের নেতৃত্বে এই দলে রয়েছেন নজরুল ইসলাম খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, এজেডএম জাহিদ হোসেন প্রমুখ।

বিকাল সাড়ে ৩টায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউশন মিলনায়তনে বিএনপির উদ্যোগে তারেক রহমানের দশম কারামুক্ত দিবসের আলোচনায় তাদের কাছ থেকে ফখরুলের মোবাইলে ফোন আসে।

আলোচনা সভা চলার মধ্যেই তখন তা সবাইকে জানান বিএনপি মহাসচিব।

তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে বলেন, “এই যে ২০-২২ ট্রাক ত্রাণ নিয়ে আমাদের নেতারা গেলেন, তারা তো অন্তত ৪/৫ হাজার অসহায় ক্ষুধার্ত রোহিঙ্গার মুখে একবেলা খাবার তুলে দিতে পারতেন। সেই খাওয়া থেকে তাদেরকে কেন আপনি বঞ্চিত করলেন?”

অনুষ্ঠানে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, “কেন এই বাধা। আজকে কারা রাজনীতি করছে? আওয়ামী লীগ রাজনীতি করছে, বর্তমান সরকার রাজনীতি করছে।”

রোহিঙ্গা সঙ্কটে চীন ও ভারতকে সরকার পাশে পাচ্ছে না বলেও মনে করেন খন্দকার মোশাররফ।

“আজকে রোহিঙ্গার মতো মানবিক ইস্যুতে চীন ও ভারত বাংলাদেশের পাশে নেই। তারা মিয়ানমারের পাশে আছে, যারা খুন করছে, জেনোসাইড করছে, তাদের পাশে আছে। তাই এত যে কথা বলেছেন, আজকে প্রমাণ হয়েছে উনি (প্রধানমন্ত্রী) দেশের মানুষের সাথে প্রতারণা করেছেন।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here