যে ভাবে নকল করতে সাহায্য করা হচ্ছে জেএসসি পরীক্ষার্থীদের

0
20

help to copy jsc

বগুড়ার শেরপুর ডিগ্রী কলেজ কেন্দ্রে জেএসসি পরীক্ষায় অভিনব কায়দায় নকল চললেও দেখার কেউ নেই। পরীক্ষা শুরুর পরপরই প্রশ্নপত্র মোবাইলের মাধ্যমে ছবি তুলে নিয়ে এসে বাইরে থেকে সমাধান করে আবারো ভিতরে দিয়ে আসছে। পরে ছাত্র-ছাত্রীরা ওই সমাধান দেখে খাতায় উত্তর লিখছে। এমনকি কেউ লুজ শিটে উত্তর লিখে ভিতরে দিয়ে আসলে তা শুধু খাতার সাথে শুধুমাত্র আটকিয়ে দেয়া হচ্ছে।

আজ সোমবার সকাল ১০টায় ইংরেজি ২য় পত্র পরীক্ষার সময় শেরপুর ডিগ্রী কলেজ কেন্দ্রে দেখা যায়, এক ছাত্রের নিকট থেকে মোবাইলের মাধ্যমে প্রশ্নপত্রের ছবি তুলে বাইরে নিয়ে আসে ওই ছাত্রের ভাই মির্জাপুরের নাঈম। পরে বাইরে এসে বই দেখে ৩০ থেকে ৪০ মার্কের উত্তর লুজ শিটে লিখে দিয়ে আসে এবং শর্ট উত্তরগুলো লিখে দিয়ে এলে তারা সেগুলো দেখে খাতায় উত্তর লেখে। এ ছাড়াও তারা প্রতিদিনই ৩০ মার্কের নৈর্ব্যক্তিক উত্তরগুলো বাইরে থেকে সমাধান করার সময় ছাত্ররা ভিতরে রচনামূলক উত্তরগুলো লেখে। এই সকল অনৈতিক কাজের সাথে কিছু কোচিং সেন্টারের শিক্ষক ও ছাত্রের অভিভাবকরা জড়িত রয়েছে।

পরে বাইরে থেকে সমাধান ভিতরে গেলে তারা তা খাতায় লিখছে। এভাবে প্রকাশ্যে নকলের মহোৎসব চললেও দেখার কেউ নেই।

জানা যায়, এই কেন্দ্রেটি শেরপুর ডিজে হাইস্কুলের সাবকেন্দ্র। এখানে ১৭টি স্কুলের মোট ১০৮৫ জন ছাত্র-ছাত্রী পরীক্ষা দিচ্ছে।

এ ব্যাপারে কেন্দ্র সচীব শাজাহান আলী জানান, বিষয়টি আমাদের জানা নেই। খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার শেখ নজমুল ইসলাম জানান, এই কাজের সাথে যারা জড়িত তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here