মিয়ানমারে ভয়ানক সংঘর্ষে পুলিশ সদস্যসহ নিহত ৩২

0
21

অনলাইন ডেস্ক ॥

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সীমান্ত পুলিশের ২০টির বেশি চৌকিকে ঘিরে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে নিরাপত্তা বাহিনীর ১১ সদস্য ও ২১ জন রোহিঙ্গা বিদ্রোহী নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার দিবাগত ১টার দিকে এ হামলার ঘটনা ঘটে বলে শুক্রবার সকালে এক বিবৃতি জানিয়েছিল দেশটির স্টেট কাউন্সেলর অং সান সু চির কার্যালয়।

মিয়ানমারে সংঘর্ষপ

ওই বিবৃতিতে প্রাথমিকভাবে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে সংঘর্ষকালে পাঁচজন পুলিশ কর্মকর্তা এবং সাতজন রোহিঙ্গা নিহত হওয়ার কথা জানানো হয়েছিল। পরে শুক্রবার সকালে আক্রান্ত পুলিশ চৌকিগুলোকে ঘিরে সেনাবাহিনী অভিযান চালালে হতাহতের সংখ্যা বাড়ে।

সু চির কার্যালয়ের বিবৃতিতে রোহিঙ্গাদের ‘চরমপন্থী বাঙ্গালি বিদ্রোহী’ আখ্যা দিয়ে বলা হয়, রাত ১টায় তারা রাখাইনের মংডাও এলাকার একটি থানায় হাতবোমা নিক্ষেপ করে, এছাড়া তারা বিভিন্ন পুলিশ চৌকিতে সমন্বিত হামলা চালায়।

ভোররাত ৩টার দিকে প্রায় ১৫০ জন রোহিঙ্গা একটি সেনাঘাঁটিতে প্রবেশের চেষ্টা চালায়। সেনা সদস্যরা তাদের প্রতিহত করে। মংডাও এলাকায় সংঘর্ষের খবর নিশ্চিত করে পার্শ্ববর্তী বুথিডং শহরের একজন পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, সীমান্ত রক্ষীদের চৌকি ঘিরে ফেলে সশস্ত্র ব্যক্তিরা হামলা চালানোর ঘটনায় সেখানে তীব্র সহিংসতা ছড়িয়ে পড়েছে।

কিছু হামলাকারীর কাছে বন্দুক রয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, পরিস্থিতি বেশ জটিল আকার ধারণ করেছে। ঘটনাস্থলে সেনাবাহিনী আসছে। এখন পর্যন্ত জানা যায়নি সংঘর্ষে রোহিঙ্গাদের কোন অংশ জড়িত রয়েছে। বিশেষ করে উত্তর রাখাইনের প্রত্যন্ত পাহাড়ি এলাকার মে ইউ ভিত্তিক বিদ্রোহী গোষ্ঠী আরাকান রোহিঙ্গা সেলভেশন আর্মির (আর্সা) সংশ্লিষ্টতার বিষয়টি স্পষ্ট নয়।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here