বিপিএল নিয়ে যা বললেন সাত দলের অধিনায়ক

0
13

bpl 2017

স্পোর্টস ডেস্ক: আজকে থেকে শুরু হতে যাচ্ছে বিপিএলের ৫ম আসর। এই আসরকে সামনে রেখে দলগুলো তাদের প্রস্তুতি নেওয়া শুরু করেছে। তবে এবারের বিপিএল শুরু হওয়ার আগে সংবাদ সম্মেলনে আসেন ৭ দলের অধিনায়ক। তাদের বক্তব্যগুলো তুলে ধরা হলোঃ

মাশরাফী বিন মোর্ত্তজাঃ আমার মনে হয়, এ বছর বিপিএল আরও ভালো হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। ভালো মানে, ক্রিকেটারদের দিক থেকে ভালো। বিদেশি বড় বড় ক্রিকেটার যারা আছে, তাদের কাছ থেকে আমাদের ছেলেরা যদি শিখতে পারে, তাহলে দারুণ হয়।

শেখার অনেক কিছু আছে। তবে টি-টোয়েন্টিতে আমি সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ মনে করি, পরিস্থিতি বুঝে খেলা। যেটায় আমাদের ঘাটতি আছে। ছেলেরা বড় বড় ক্রিকেটারদের দেখে শিখতে পারে।

মুশফিকুর রহিমঃ সবচেয়ে জরুরি যেটা দরকার, আমরা স্থানীয় ক্রিকেটাররা যদি ভালো খেলতে পারি, ভালো কিছু শিখতে পারি, তাহলে দেশের ক্রিকেটের জন্য খুব ভালো হবে। অনেক বড় বড় ক্রিকেটার আসে বিপিএলে। তদের সঙ্গে খেলে তরুণ ক্রিকেটারদের মতো আমরা সিনিয়ররাও অনেক শিখতে পারি। ভালো খেললে আত্মবিশ্বাস বাড়ে।

আরেকটা ব্যাপার আমি বলতে চাই। পারিশ্রমিকের ব্যাপারটিতে আরেকটু পেশাদারিত্ব প্রয়োজন। আমরা ক্রিকেটাররা শুধু ক্রিকেট নিয়েই ভাবব। আমাদের যদি টাকা-পয়সা নিয়ে দুর্ভাবনায় থাকতে হয়, তাহলে কাজটা কঠিন। আগের চেয়ে অনেক ভালো হয়েছে অবশ্যই। তবে আরও পেশাদারিত্ব এলে ভালো হয়। শুধু বিপিএল নয়, ঘরোয়া সব টুর্নামেন্ট নিয়েই এটি আমার চাওয়া।

তামিম ইকবালঃ আমার চাওয়া নিয়ে অনেকের ভ্রূ কুঁচকে যেতে পারে। তবে যেটা মনে করি, সৎভাবেই সেটি বলছি। বিপিএলে ৬টির বেশি ফ্র্যাঞ্চাইজি থাকা উচিত নয়। আইপিএলে ১৩০ কোটি মানুষের দেশে ৮টি দল। আমাদের ১৭ কোটি মানুষের দেশেই ৮টি দল ছিল। ফ্র্যাঞ্চাইজি বাতিল হওয়ায় এখন ৭টি হয়েছে।

আয়োজনগত দিক থেকে আগের চেয়ে অনেক উন্নতি হয়েছে। উন্নতির তো শেষ নেই। আরও উন্নতির সুযোগ আছে। তবে দিন দিন ভালো হচ্ছে। এখন এই বিষয়গুলোয় নজর দেওয়া প্রয়োজন। বিপিএল এমনিতে দারুণ টুর্নামেন্ট। দল কমিয়ে একটু আঁটসাঁট করলে প্রতিদ্বন্দ্বিতা, আগ্রহ, আকর্ষণ বাড়বে।

সাকিব আল হাসানঃ এবার যেমন তিনটি ভেন্যু হলো। পরেরবার আমি আশা করব, পাঁচটি ভেন্যু হবে। ভেন্যু বেশি হলে যেটা হয়, টুর্নামেন্টে আলাদা মজা, রোমাঞ্চ থাকে। প্রতিদ্বন্দ্বিতা বেশি হয়। দর্শকের আগ্রহ বেশি থাকে। মাঠ আর উইকেটগুলোও ভালো থাকে। আজকে এই দেখুন, এতগুলো দল একসঙ্গে অনুশীলন করছে। কেউই ঠিকমত করতে পারছে না। এই সুযোগ-সুবিধাগুলো তখন আরও ভালো হবে।

আরেকটি ব্যাপার হলো, একই দিন একই মাঠে পরপর দুটি ম্যাচ না হয়ে দুটি ভিন্ন শহরে হলে ভালো হয়। একটি মাঠে টানা কয়েকদিন দুটি করে ম্যাচ মাঠের ফ্যাসিলিটিজের জন্য ভালো হয় না। ভেন্যু তিন-চারটা থেকেও যদি দিনের দুটি ম্যাচ দুই জায়গায় হয়, তাহলে ভালো হয়। জানি এটির জন্য অনেক কিছু লাগবে। ব্যয় বেড়ে যাবে। তবে করতে পারলে টুর্নামেন্টের জন্য ভালো হবে।

মাহমুদুল্লাহ রিয়াদঃ আমি চাইব, স্থানীয় ক্রিকেটাররা দারুণ পারফর্ম করুক। অন্তত আমার দলের স্থানীয় ক্রিকেটাররা। বিদেশিরাও আছে। তাদের পারফরম্যান্সও দরকার আছে। কিন্তু আমি চাই দেশি ক্রিকেটাররা টুর্নামেন্টের সেরা পারফরমার হোক, জয়ের নায়ক হোক। দেশি ক্রিকেটারদের শক্তিতে জিততে চাই আমরা।

ড্যারেন স্যামিঃ বাঙ্গালদেশ প্রিমিয়ার লীগটা বেশ প্রফেশনাল। অনেক দেশের প্লেয়াররা এটা খেলতে মুখিয়ে থাকে। তবে এই টুর্নামেন্টের মান দিন দিন উন্নতি হচ্ছে। আশা করি সামনের টুর্নামেন্টগুলোতে আরো বেশি পরিবর্তন আসবে। ‘

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here