পুতুলের যৌনপল্লী প্রথমবারের মতো চালু হলো জার্মানিতে

0
80

sex doll

কথিত আছে, পৃথিবীর সবচেয়ে প্রাচীন পেশা নাকি পতিতাবৃত্তি। কিন্তু কোনো যুগে, কোনো দেশেই মানুষ বিষয়টি নিয়ে কথা বলতে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেনি, আজও করে না।

তবে বিশ্বের বহু দেশেই পতিতাবৃত্তি বৈধ এবং সেখানে যৌনকর্মীরা নিয়মিত আয়করও দেন।
কিন্তু মানুষের বদলে এবার পুতুলকে ব্যবহার করা হচ্ছে পতিতাবৃত্তির পেশায়। বিশ্বে প্রথমবারের মতো চালু হয়েছে পুতুলের যৌনপল্লী। অদ্ভুত এই পল্লীতে রয়েছে ১১টি পুতুল। সাত হাজার ৮০০ টাকা (৮০ ইউরো) খরচ করলেই সেগুলোর যেকোনো একটির সঙ্গে কাটানো যাবে পুরো এক ঘণ্টা।

লন্ডনভিত্তিক সংবাদমাধ্যম দি ইনডিপেন্ডেন্টের খবরে বলা হয়, জার্মানির ডর্টমুন্ড শহরে ওই যৌনপল্লীটি চালু করেছেন এভলিন সোয়ার্জ নামের এক তরুণী। তিনি পল্লীটির নাম দিয়েছেন ‘বোরডল’।

এভলিন জানান, এশিয়া থেকে তিনি ওই পুতুলগুলো আমদানি করেছেন। প্রতিটি পুতুলের দাম পড়েছে এক লাখ ৭৪ হাজার টাকা (এক হাজার ৭৮৬ ইউরো)।

সেগুলোর ওজন ৩০ কেজি করে। পুতুলগুলো খুবই উচ্চমানের। একেবারে ‘স্বপ্নের নারীদের’ মতো।

এভলিন আরো জানান, তাঁর যৌনপল্লীটি খুবই জনপ্রিয়। প্রতিদিন এক একটি পুতুল গড়ে ১২ বার করে ভাড়া নেওয়া হয়। আর পুতুলদের সঙ্গে সময় কাটাতে আসেন সব বয়সের পুরুষরাই। অনেকে নাকি স্ত্রীকে গাড়িতে রেখে টাকা খরচ করে যান পুতুলের পেছনে।

তবে দুঃখ করে এভলিন বলেন, সম্প্রতি অ্যানা নামের একটি পুতুলকে পরিবর্তন করতে হয়েছে। কারণ এক ব্যক্তি ভাড়া নেওয়ার পর সেটি ভেঙে ফেলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here