নিহত ৫ বাংলাদেশির মরদেহ ঢাকা পৌঁছাবে বৃহস্পতিবার

0
31
ছবির সবাই নিহত হয়েছে

কুয়েতে অগ্নিকাণ্ডের দুর্ঘটনায় নিহত ৫ জনকে আগামীকাল বুধবার দিবাগত রাতে দেশে প্রেরণ করা হবে। এরই মধ্যে সরকারি সকল কার্যক্রম সম্পন্ন করা হয়েছে।

দূতাবাস থেকে সর্বাত্মক সহযোগিতা করা হচ্ছে। বৃহস্পতিবার সকালে মরদেহ বাংলাদেশে পৌঁছাবে বলে আশা করা যাচ্ছে।
কুয়েতে বাংলাদেশ দূতাবাসের শ্রম কাউন্সিলের আব্দুল লতিফ খান বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। লাশ বহনের সম্পূর্ণ খরচ দূতাবাস তথা বাংলাদেশ সরকার বহন করেছেন বলে তিনি জানান।

কুয়েতে বিমানের কান্ট্রি ম্যানেজার দিবাকর দেওয়াজির সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, ১৯ অক্টোবর বৃহস্পতিবার স্থানীয় কুয়েত সময় মধ্যরাত ১২:১০ মিনিটে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ফ্লাইট নং বিজি ০৪৪ এই বিমান যোগে বাংলাদেশের উদ্দেশ্যে রওনা হবে। ঐ ফ্লাইটটি বাংলাদেশ সময় সকাল ৮:৫০ মিনিটে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করবে।

উল্লেখ্য, গত ১৬ অক্টোবর সোমবার কুয়েতে সালমিয়া অঞ্চলে একটি আবাসিক ভবনে অগ্নিকাণ্ডে কুয়েত প্রবাসী জুনায়েদ এর স্ত্রী সহ ৫ জন নিহত হয়। নিহতরা হল স্ত্রী রোকেয়া বেগম (৪০), সন্তানরা হলো জমিলা (১৪), ইমাদ (১২), নাবিলা( ৯), ফাহাদ (৩)। নিহতদের দেশের বাড়ী সিলেটের মৌলবীবাজার জেলার কমলগঞ্জ থানায়।

ঐ ভবনের ৫ম তলায় তারা বসবাস করত। একই ভবনের চতুর্থ তলায় আগুন লাগলে সেই লেলিহান আগুনের ধোঁয়ায় ওপরে থাকা ৫ম তালায় সবাই নিহত হন।
ঐ ভবনের দ্বিতীয় তলায় বসবাস কারী আরেক বাংলাদেশী মাসুদুর রহমান জানান চতুর্থ তলায় আগুন লাগলে তারা নিচে নামতে পারেনি ছাঁদের দরজা বন্ধ থাকায় ছাদেও যেতে পারেনি। ঐ রুমেই তারা শ্বাসরুদ্ধ হয়ে মারা যান। ঐ সময় ঐ পরিবারের অভিভাবক কুয়েত প্রবাসী জুনায়েদ আহমেদ কর্মস্থলে ছিলেন। নিহতদের মরদেহ বর্তমানে সাবাহ হসপিটালের হিমঘরে রাখা হয়েছে।

কুয়েতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এস এম আবুল কালাম, বাংলাদেশ দূতাবাসের শ্রম কাউন্সিলর আব্দুল লতিফ খান সহ দূতাবাসের কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল ও হাসপাতাল পরিদর্শন করেন। এই ঘটনায় কুয়েতে সকল প্রবাসীদের মনে শোকের ছায়া নেমে আসে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here