আমরা না থাকলে হাজার বছরেও ক্ষমতার মুখ দেখবেন না: ইনু ! (ভিডিও)

0
52

Hasanul Haque Inu

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের নেতাদের প্রতি ক্ষোভ ঝেড়েছেন তাদের জোট শরিক জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জাসদের নেতারা।জাসদ একাংশের সভাপতি ও তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বুধবার নিজের এলাকা কুষ্টিয়ায় এক সমাবেশে বলেছেন, সংখ্যায় বিপুল না হলেও তাদের ছাড়া হাজার বছরেও আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসতে পারবে না।

এদিকে এক বিবৃতিতে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ও প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা এইচটি ইমামকে বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের ‘ষড়যন্ত্রকারীদের একজন’ আখ্যায়িত করেছেন জাসদের অপর অংশের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক শরীফ নুরুল আম্বিয়া ও নাজমুল হক প্রধান।

তার এক বক্তব্যের প্রসঙ্গ টেনে এক যৌথ বিবৃতিতে জাসদ নেতারা বলেছেন, “১৯৭৫ সনের ১৫ অগাস্ট বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারী খুনি খন্দকার মোশতাকের মন্ত্রিপরিষদ সচিব অতি উৎসাহী আমলা সে সময়ের মতোই একই ধরনের ষড়যন্ত্রমূলক আচরণ করছেন।

“১৯৭৫ সনের মধ্যভাগ হতে যারা ষড়যন্ত্রের জাল তৈরি করেছিলেন তার অন্যতম একজন ব্যক্তি যখন মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তির মধ্যে বিভেদ সৃষ্টির জন্য আবার তৎপর হন, তখন আমাদের সতর্ক না হয়ে উপায় নেই।”

তাদের ওই বিবৃতি আসার কয়েক ঘণ্টার মধ্যে বিকালে কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলা ফুটবল মাঠে এক দলীয় সভায় স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাদের উদ্দেশ্যে কঠোর ভাষায় বক্তব্য দেন হাসানুল হক ইনু।
তিনি বলেন, “আপনারা ৮০ পয়সা থাকতে পারেন। আপনি এক টাকার মালিক না। যতক্ষণ এক টাকা হবেন না ততক্ষণ ক্ষমতা পাবেন না। আপনি ৮০ পয়সা আর এরশাদ, দিলীপ বড়ুয়া, মেনন আর ইনু মিললে তবেই এক টাকা হবে। আমরা যদি না থাকি তাহলে ৮০ পয়সা নিয়ে আপনারা (আ. লীগ) রাস্তায় ফ্যা ফ্যা করে ঘুরবেন। এক হাজার বছরেও ক্ষমতার মুখ দেখবেন না। সুতরাং ঐক্য করেছি জাতীর জন্য, দেশের জন্য, মানুষের জন্য। সেই ঐক্যের ফসল হিসাবে আজ শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী।”

স্বাধীনতার পর আওয়ামী লীগ সরকারের বিরোধিতাকারী দল জাসদের এই নেতা বলেন, “জাসদ সন্ত্রাস, মারামারি চায় না, দলবাজি পছন্দ করে না। আমি শান্তি চাই বলে আপনারা এটাকে দুর্বলতা ভাববেন না। জাসদের লাঠি আছে, শক্তি আছে, আমরা যদি মনে করি জাসদের লাঠি যে রাস্তায় যাবে সে রাস্তায় আর কেউ থাকবে না।

“আমি কিছু বলি না, জাসদের কর্মী ভায়েরা সহ্য করে। আমি আইনের শাসনে বিশ্বাস করি। অন্য এমপিদের মতো ডিসি, এসপি, ইউএনও, ওসি আমদানি করি না। তারা আইন অনুযায়ী চলবেন। আমার কর্মীরা চোর-ডাকাত না।”
আওয়ামী লীগের সঙ্গে ঐক্যের কারণ ব্যাখ্যায় ইনু বলেন, “শেখ হাসিনা মুক্তিযুদ্ধের নেত্রী আর খালেদা জিয়া রাজাকারের নেত্রী। শেখ হাসিনা বাংলাদেশের, খালেদা জিয়া পাকিস্তানের; শেখ হাসিনা মানুষের, খালেদা জিয়া জঙ্গির। তাই আমি দেশের জন্য শেখ হাসিনার সাথে ঐক্য করেছি। আগামী জাতীয় নির্বাচন ঐক্যবদ্ধভাবে হবে। জাসদ ঐক্যের মর্যাদা রাখবে, আপনারা পায়ে পা লাগিয়ে ঝগড়া করবেন না। জাসদের কাফেলা চলতেই থাকবে।”

মিরপুর উপজেলা জাসদ সভাপতি মোহাম্মদ শরীফের সভাপতিত্বে সমাবেশে অন্যদের মধ্যে কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার, জাতীয় নারী জোটের সভাপতি আফরোজা হক রিনা, জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক রোকনুজ্জামান রোকন, সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আনোয়ার, জেলা জাসদ সভাপতি গোলাম মহসিন, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আলিম স্বপন বক্তব্য দেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here